বর্ষায় চুলের যত্ন

19.6.14

ঝুমঝুম বৃষ্টির দিন কার না ভালো লাগে। বর্ষাকালে বৃষ্টির দিনে মনটা যেন খুশি-খুশি হয়ে ওঠে।মন চায় ছুটে গিয়ে বৃষ্টিতে ভিজতে। কিন্তু মন খুশি হলেও চুল কিন্তু একটুও খুশি হয় না।এই স্যাঁতসেঁতে আবহাওয়া আমাদের চুলের জন্য মোটেও সুখকর নয়। কারণ বৃষ্টির জল মাথায় পড়তেই চুল হয়ে যায় রুক্ষ, শুষ্ক ও অনুজ্জ্বল।  চুলপরা ও তৈলাক্ত খুশকির সমস্যা সবাইকে কমবেশি একটু বেশিই ভোগায়। বর্ষায় চুলের যত্নে একটু বেশি নজর দেওয়াই জরুরী।বর্ষায় চুলের সমস্যা দূর করার জন্য রইল কয়েকটা সমাধান টিপস।


চুলের রুক্ষতা দূর করার টিপস 

তিনটে পাকা কলা ও এক টেব্ল চামচ মধু একসঙ্গে মিশিয়ে একটা প্যাক তৈরি করে মাথায় ৫০ মিনিট লাগিয়ে রাখবেন। এর পর শ্যাম্পু করে চুল ধুয়ে নিন। এতে চুলের রুক্ষতা কমে এবং চুল হয়ে ওঠে চকচকে।
খুসকি দূর করার টিপস

মেথি চুলের জন্য খুব উপকারী। এর জন্য সারারাত একটা পাত্রে মেথি ভিজিয়ে রেখে সকালে জলটা ছেকে নিন। এর পর ছেকে নেওয়া জলটা আলাদা করে রাখুন। এর পর শ্যাম্পু করে চুল ধোওয়ার পর সবশেষে ওই মেথি ভেজানো জল দিয়ে চুল ধুয়ে নিন । এর ফলে চুল পড়া কমে, খুসকি দূর হয় এবং চুলের উজ্জ্বলতাও বাড়ে।

চুল পরা কমাতে আর খুশকি দূর করতে ঘরে তৈরী এই হারবাল প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন- এক চামচ লেবুর রস, এক চামচ নিমপাতা বাটা, দুইটা আমলকির রস, একটা ডিম ও সামান্য টকদই মিশিয়ে একটি প্যাক তৈরী করুন। চুলে লাগিয়ে একঘন্টা পর ভাল ভাবে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন।

এছাড়া এই সময় চুল ভালো রাখতে দু'টেবল চামচ অলিভ অয়েল ও এক টেবল চামচ মধু একটি পাত্রে নিয়ে হালকা গরম করে নিন। এর পর ওই তেল চুলের লেংথে ভাল করে লাগিয়ে নিন, খেয়াল রাখবেন স্ক্যাল্পে যেন না লাগে, কারণ এর ফলে বর্ষাকালে চুল বেশি অয়েলি হয়ে যেতে পারে। ১৫-২০ মিনিট রাখার পর চুল ভাল করে শ্যাম্পু করে নিন।
বর্ষাকালে অনেক সময় স্ক্যাল্প খুব অয়েলি হয়ে যায়। এর সমাধানের জন্য একটা পাতিলেবুর রস স্ক্যাল্পে ভাল করে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে চুল ধুয়ে নেবেন।
বর্ষা কালে যা করা উচিৎ

• বৃষ্টির জল মাথায় লাগলে অবশ্যই চুল ধুয়ে ফেলতে হবে। কারণ বৃষ্টির জল অধিক সময় মাথায় থাকলে মাথার তালু ও চুলের গোড়ায় ফাংগাল ইনফেকশন হতে পারে।
• বর্ষায় স্যাতসেতে আবহাওয়ায় চুল বেশি পরে আর মাথায় দেখা দেয় তৈলাক্ত খুশকি। এসময় বারবার শ্যাম্পু না করে সপ্তাহে দু-তিনবার শ্যাম্পু করা উচিত।
• চুল ধোয়ার পর তাড়াতাড়ি শুকিয়ে ফেলতে হবে, বেশিক্ষণ ভেজা রাখা যাবেনা।
 বর্ষার আবহাওয়ায় জলীয় বাষ্প বেশি থাকে, ফলে চুল অগোছালো দেখায়। তাই এ সময় নিয়মিত কন্ডিশনিং করা উচিত। সিলিকন বেস্‌ড সিরামও ব্যবহার করতে পারেন।
লেখাটি ভালো লাগলে লাইক ও সেয়ার করুন


You Might Also Like

0 comments

Contact Form

Name

Email *

Message *

Translate

Followers

Labels