কফি পাউডার ব্যবহার করে স্ট্রেচ মার্কস দূর করুন

25.5.18


স্ট্রেচ মার্কস  হল শরীরের সব থেকে বিশ্রী দাগ। এই দাগগুলি বিশেষত শরীরের বিভিন্ন অংশে যেমন- পেটের, কোমর, হাত, ঘাড়, হাটুর পেছনে, উরু এমনকি বুকেও দেখা যায়। এই দাগের দরুন আমাদের কিছু কিছু পোশাক পরাতে প্রতিবন্ধকতা এসে যায়।  স্ট্রেচ মার্কস সমস্যা বিশেষত প্রসবের পর মহিলাদের  মধ্যে দেখা যায় তাছাড়া মোটা হয়ে যাওয়া, বা হঠাৎ করে রোগা হয়ে যাওয়ার ফলে হলেও এই ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। এছারাও বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ত্বক শিথিল হয়ে পরে। যার দরুন  ত্বকে স্ট্রেচ মার্কস  দেখা দেয়। তাই সময় থাকতে  এর সঠিক যত্ন নিলে এই অবাঞ্ছিত দাগগুলির হাত থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যায় অথবা যাদের ত্বকে এই দাগগুলি রয়েছে তারা যদি নিয়মিত যত্ন নেন  তাহলে স্ট্রেচ মার্কস  অনেকটাই হালকা হয়ে আসে।



কফি ত্বকের স্ট্রেচ মার্কস দূর করতে বেশ কার্যকরী। কফি পাউডারের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি ইনফ্লামেনটরী উপাদান ত্বককে মসৃণ কোমল করে তোলে। শুধু তাই নয় কফি ত্বকের  বলিরেখা, কালো দাগ দূর করতেও সাহায্য করে। কফিতে উপস্থিত  ক্যাফিন যা UV বিকিরণ বিরুদ্ধে কোষ রক্ষা করতে সাহায্য করে এবং ত্বকে বয়স বাড়ার ছাপ পরতে দেয় না। এই ক্যাফিন ত্বকে সুস্থ রক্ত সঞ্চালনকে প্ররোচিত করে যা ত্বকে উজ্জ্বল করে এবং স্ট্রেচ মার্কসকে হালকা করতে সাহায্য করে। কফি দিয়ে নিয়মিত ত্বক স্ক্রাব করলে ত্বকে যেমন  রক্ত সঞ্চালন হয় তেমনি ত্বক উজ্জ্বল, নরম এবং ত্বকের শিথিল হওয়ার সম্ভবনা কমে আসে। আগেই বলেছি কফি পাউডারের রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট যা ত্বককে পুনরুজ্জীবিত করতে সাহায্য করে।

এবার দেখে নেওয়া যাক কফি পাউডার দিয়ে স্ট্রেচ মার্কস দূর করার এক্সফোলিয়েট রেসিপিটি কিভাবে তৈরি করবেন।



যা যা লাগবে -
  • কফি পাউডার
  • অলিভ তেল
  • অ্যালোভেরা
কিভাবে তৈরি করবেন-

আমি এখানে পরিমাণটা উল্লেখ করলাম না। আপনাদের প্রয়োজন অনুশারে প্রতিটি উপাদান একটি পাত্রে ভাল করে মিশিয়ে নিন। 


এবার সে সব স্থানে স্ট্রেচ মার্কস রয়েছে, তাতে এই মিশ্রণটি ১০ থেকে ১৫  মিনিটের জন্য লাগিয়ে রাখুন। ১৫ মিনিট পরে হালকা মাসাজ করে ঈষদুষ্ণ জল দিয়ে ধুয়ে নিন। এই প্রক্রিয়াটি সপ্তাহে ৩ থেকে ৪ দিন করা যেতে পারে। এক মাস টানা করে দেখুন অবশ্যই ফল পাবেন।

কেমন লাগলো আজকের এই রেসিপিটি অবশ্যই জানাবেন এবং মনে কোন প্রশ্ন থাকলে নীচের মন্তব্য বাক্সে অথবা ফেসবুক পেজে আপনার প্রশ্ন করুন। আর যদি আপনার এই লেখাটি পছন্দ হয়ে থাকে, তাহলে নীচের সোশাল মিডিয়া বোতামগুলির মাধ্যমে বন্ধুদের এবং পরিবারের সাথে এটি সেয়ার করে নিন।


You Might Also Like

0 comments

Contact Form

Name

Email *

Message *

Translate

Followers

Labels